দর্শকদের কথা রাখলেন মমতাজ

শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৪:১০ অপরাহ্ণ |

দর্শকদের কথা রাখলেন মমতাজ

ডেস্ক: ঘড়ির কাঁটা টিক টিক। রাত তখন ১১টা। শুক্রবার রাতের এ সময়ে ঢাকা আর্মি স্টেডিয়ামে অপেক্ষারত হাজার হাজার দর্শকের সামনে হাজির হলেন বাংলার ফোক সম্রাজ্ঞী মমতাজ। গাইতে শুরু করলেন মাটির গান। সুরে মোহাচ্ছন্ন হয়ে দর্শকরা দুলতে শুরু করলো গাছের পাতার মতো। মমতাজের কণ্ঠে বেজে উঠলো ‘ আমি মাটির গান গাই’।

এরপরেই মমতাজ গেয়ে উঠলেন মারফতি গান। গান ধরলেন ‘ও সোনার মুর্শিদ রে, ও প্রাণের বান্ধব রে, আমি কী দিয়া ভজিবো তোমারে।’, মমতাজ মমতাজ রব উঠলো স্টেডিয়ামে।

এরপর সত্তা সিনেমার সেই জনপ্রিয় গান, ‘না জানি কোন অপরাধে দিলা এমন জীবন, আমারে পুড়াইতে তোমার আয়োজন’ গাইলেন তিনি।

গানের পরে শুধুই গান চলছে। মমতাজ বললেন, ‘ঢাকায় শীত কম পড়লেও গ্রামে এখন শীত পড়ে গেছে। গ্রাম ভেসে উঠলো শহরের মানুষদের চোখে। গান ধরলেন ‘আমার সোনা বন্ধু রইলো বৈদেশেতে দারুণ শীতে’।

অন্য আরেকটি গান গাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন মমতাজ। এমন সময় স্টেডিয়াম ভরা দর্শকের অনুরোধে লোকাল বাস গানটি গাইতে হলো তাকে। গানটি আজ গাইবেন না বললেও অবশেষে গেয়ে ওঠেন সেই গান। উচ্ছ্বাসে মাতে দর্শক।

এই গানের পরেই অনুরোধ আসে ‘পাঙ্খা’ গানের। মমতাজ বললেন, সরকার যেভাবে বিদ্যুতের উন্নয়ন করছেন। পাখা হয়তো আর ব্যবহারই হবে না। মানুষ এখন এসি ব্যবহার করেন। গ্রাম বাংলার পাঙ্খা হয় তো জাদুঘরেরই চলে যাবে। এরপর গানটি গাইলেন তিনি। দর্শকদের মাতিয়ে শেষ করলেন তার পরিবেশনা। পর্দা নামলো দ্বিতীয় দিনের ফোক ফেস্টের। ততক্ষণে ঘড়ির কাঁটা ছুঁয়ে যায় ১২ এর ঘর।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ছিল ফোক ফেস্টের দ্বিতীয় দিন। এদনি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ফোক ফেস্ট শুরু হয়েছিল রাজশাহীর স্বরব্যাঞ্জো ব্যান্ডের পরিবেশনা দিয়ে। এরপর গেয়েছেন বাহরাইনের মাযায, ভারতের রাঘু দিক্ষিত, ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে আগত লস টেক্সমেনিয়াক্স।

‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোক ফেস্টে’র সম্প্রচার করেছে মাছরাঙা টেলিভিশন। এ ছাড়া গ্রামীণফোনের অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিসের বায়োস্কোপ লাইভে অনুষ্ঠানটি লাইভ দেখা গেছে।

২০১৮-২০১৯ | পায়রা.ডটকম'র কোনো সংবাদ বা ছবি অন্য কোথাও প্রকাশ করবেন না

Development by: Mostafijar